GLOBAL NETWORK OF BANGLADESHI BIOTECHNOLOGISTS

NEWS

করোনা ভাইরাস রোগ এবং আমাদের করণীয়

করোনা ভাইরাস রোগ             এবং আমাদের করণীয়

A very timely article by Dr. Talat Nasim, University of Bradford England for GNOBB readers on how to stay away from the Covid-19 caused by Corona virus.                                          

 

করোনা ভাইরাস রোগ কি এবং কারা বেশী আক্রান্ত ?

করোনা ভাইরাস রোগ হচ্ছে  করোনা নামক নুতন ভাইরাস এর আক্রমণে সংক্রমিত এক রোগ। এই ভাইরাস এ আক্রান্ত রোগীদের জ্বর (৩৭.৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস), ক্রমাগত কাশি, ক্রমাগত হাঁচি, নাক দিয়ে পানি পড়া,গলা ব্যথা, শ্বাসকষ্ট হতে পারে। এ ছাড়া রোগীদের নিউমোনিয়া এবং acute respiratory distress syndrome দেখা দিতে পারে।

বেশীরভাগ মানুষের শরীরে এ ভাইরাস অল্প-স্বল্প অসুস্থতা তৈরি করতে পারে। তবে যারা অন্যান্য রোগ যেমন ডায়াবেটিস, ক্যান্সার, উচ্চ রক্তচাপ, কিডনি রোগ সহ জটিল রোগে ভুগছেন তাদের ক্ষেত্রে এ ভাইরাস আক্রমণ প্রাণঘাতী হতে পারে। যাদের বয়স ৬০ এর বেশী তাদের ক্ষেত্রে এ ভাইরাস এর সংক্রমণ বেশী দেখা গেছে।  মৃত্যুহার সবচেয়ে বেশী যাদের বয়স ৭০ এর বেশী।

কিভাবে এই ভাইরাস ছড়ায়?

আক্রান্ত ব্যাক্তির কাশি, হাঁচি, কথা বলা, স্পর্শ , আক্রান্ত ব্যাক্তির ব্যবহার্য জিনিস পত্রের মাধ্যমে এ ভাইরাস একদেহ থেকে অন্য দেহে ছড়িয়ে পরে।

প্রতিরোধ

এই ভাইরাস যেহেতু মানুষের মাধ্যমে ছড়ায়, সেহেতু আমাদের কিছু পদক্ষেপ নিতে হবে নিজেকে রক্ষা করতে এবং কিছু পদক্ষেপ নিতে হবে অন্যদের রক্ষা করতে।

নিজেকে রক্ষা-

১. ২০ সেকেন্ড ধরে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া

২. হাত দিয়ে মুখমন্ডল স্পর্শ না করা

৩. যেসব স্থানে ৬ বা তার অধিক মানুষের  সমাগম হয়, সেই জায়গাগুলো না যাওয়া

৪. আক্রান্ত ব্যাক্তিদের থেকে দূরে থাকা

৫. পাবলিক স্থানে অন্য ব্যাক্তি থেকে অন্তত ৬ ফুট দূরত্ব বজায় রাখা। হ্যান্ডশেক, কোলাকুলি না করা।

অন্যদের রক্ষা-

১. যাদের বয়স ৭০ এর বেশী তাদের থেকে দূরে থাকা।

২. যাদের বাড়িতে বয়স্ক লোকজন (বাবা-মা, দাদা-দাদী) আছেন, তাদের হেফাজত করা। যদি সম্ভব হয়, তাদের ঘরে খাবার পৌছে দিয়ে এবং দৈনন্দিন কাজকর্ম থেকে তাদের বিরত রাখা। তারা যাতে কোনোভাবে সংক্রমিত হতে না পারে সেদিকে বিশেষ নজর দেয়া।

৩. যদি আপনার কিংবা পরিবাবের মধ্যে কোনো কোনো উপসর্গ দেখা দেয়, তা হলে  প্রথম সাত দিন (isolation) বাড়িতে অবস্থান করা, এবং উপসর্গ  না কমলে ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করা এবং ১৪ দিন বাড়ি থেকে বের না হওয়া।

চিকিৎসা

এ ভাইরাস এর প্রতিষেধক এখনো আবিষ্কৃত হয়নি। তবে favipiravir নামক এক ওষুধ ভাইরাস এ আক্রান্ত রোগীদের প্রয়োগ করে ভালো ফলাফল পাওয়া গেছে। এ ছাড়া Hydroxychloroquine এবং azithromycin প্রয়োগে  ভালো ফলাফল দেখা গেছে।

লেখক- ড. তালাত নাসিম, বিজ্ঞানী এবং বিশ্ববিদ্যালয়  শিক্ষক, Unievrsity of Bradford, England

 

Recent News

Calendar

February 2017
Su Mo Tu We Th Fr Sa
29 30 31 1 2 3 4
5 6 7 8 9 10 11
12 13 14 15 16 17 18
19 20 21 22 23 24 25
26 27 28 29 1 2 3